ksrm

শিক্ষা সময়নানা কারণে অস্থিতিশীল হয়ে উঠছে বিশ্ববিদ্যালয়গুলো

সময় সংবাদ

fb tw
নানা কারণেই হরহামেশাই অস্থিতিশীল হয়ে উঠছে বিশ্ববিদ্যালয়। ফলে ভাবমূর্তি নষ্টের পাশাপাশি ব্যহত হচ্ছে শিক্ষা কার্যক্রম। সবকিছু ছাপিয়ে সাম্প্রতিক সময়ে শিক্ষার্থীদের প্রতিপক্ষ হয়ে দাঁড়িয়েছেন উপাচার্য ও শিক্ষকরা। এর জন্য শিক্ষক রাজনীতির পাশাপাশি ক্ষমতাসীন দলের প্রভাব এবং নিয়ম বহির্ভুতভাবে উপাচার্য নিয়োগকে বড় কারণ হিসেবে দেখছেন বিশ্লেষকরা। 
দেশের সর্বোচ্চ বিদ্যাপীঠের তালিকায় রয়েছে সরকারি বিশ্ববিদ্যালয়গুলো। যেখানে তৈরি হয় ভবিষ্যতের কাণ্ডারি। তবে সম্প্রতি এই বিশ্ববিদ্যালয়গুলোতে শিক্ষকদের দুর্নীতি ও অনৈতিক কর্মকাণ্ডের কারণে তৈরি হয়েছে অস্থিরতা।
গেল কয়েকবছরে ভিসি ও শিক্ষকদের বিরুদ্ধে ছাত্র আন্দোলন বেশ মাথা চড়া দিয়ে উঠেছে বিশ্ববিদ্যালয়গুলোতে। চলতি বছরের শুরু দিকে বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয়ে শিক্ষার্থীদের বিরুদ্ধে অশালীন বক্তব্যের কারণে ভিসির বিরুদ্ধে শুরু হয় আন্দোলন। গোপালগঞ্জের বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসির লাগামহীন মন্তব্যের কারণে গড়ে ওঠে আন্দোলন। এছাড়া জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসির বিরুদ্ধে উন্নয়ন প্রকল্পের অর্থ আত্মসাতের অভিযোগে শুরু হয় দুর্বার আন্দোলন। যা রূপ নিয়েছে সংঘর্ষে। রাজনৈতিক চর্চাই কি এর মূল কারণ?
ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় এমিরেটাস অধ্যাপক ড. এ কে আজাদ চৌধুরী বলেন, এখন যে অস্থিরতা, বিশেষ করে উপাচার্য বনাম ছাত্রদের নিয়ে। এখানে নৈতিক স্খলনের অভিযোগ আসছে, টাকা দেয়া-নেয়ার অভিযোগ আসছে। এইগুলো কিন্ত চারিত্রিক থেকেই হয়ে থাকে।
১৯৭৩ সালের বিশ্ববিদ্যালয়ে অধ্যাদেশ আইন না মানা, দক্ষ ও সঠিক মান যাচাই না করে শিক্ষক নিয়োগ দেয়াকে দায়ী করছেন বিশ্লেষকরা।
ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় এমিরেটাস অধ্যাপক ড. এ কে আজাদ চৌধুরী বলেন বলেন, একটা কমিটির মাধ্যমে গ্রহণযোগ্য মানুষের নিয়ে যদি করান। তাহলে দেশের জন্য ও ভালো , যারা দেশে চালান তাদের জন্যও ভালো। তবে দলের লোকদের উপাচার্য নিয়োগ দেওয়া ঠিক না।
জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয় অধ্যাপক আনু মুহাম্মদ বলেন, সরকার যদি বিশ্ববিদ্যালয়কে বিশ্ববিদ্যালয়ের মতো চলতে দিতো। এবং যারা শিক্ষা গবেষণায় আগ্রহী তাদের যদি দায়িত্ব দেয়। তাহলেই তো বিশ্ববিদ্যালয়গুলো স্বাভাবিক ভাবে চলতে পারে।
বিশ্ববিদ্যালয়গুলো হোক দুর্নীতিমুক্ত, জ্ঞানচর্চা ও গবেষণা বান্ধব। তবে এর জন্য প্রথমে সরকারকেই এগিয়ে আসার পরামর্শ তাদের। 

আরও সংবাদ

বাংলার সময়
বাণিজ্য সময়
বিনোদনের সময়
খেলার সময়
আন্তর্জাতিক সময়
মহানগর সময়
অন্যান্য সময়
তথ্য প্রযুক্তির সময়
রাশিফল
লাইফস্টাইল
ভ্রমণ
প্রবাসে সময়
সাক্ষাৎকার
মুক্তকথা
বাণিজ্য মেলা
রসুই ঘর
বিশ্বকাপ গ্যালারি
বইমেলা
উত্তাল মার্চ
সিটি নির্বাচন
শেয়ার বাজার
জাতীয় বাজেট
বিপিএল
শিক্ষা সময়
ভোটের হাওয়া
স্বাস্থ্য
ধর্ম
চাকরি
পশ্চিমবঙ্গ
ফুটবল বিশ্বকাপ
ভাইরাল
সংবাদ প্রতিনিধি
বিশ্বকাপ সংবাদ
Latest News
আপনিও লিখুন
ছবি ভিডিও টিভি
মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন
GoTop