আন্তর্জাতিক সময়অশান্ত বলিভিয়া, মেক্সিকোয় আশ্রয় নিয়েছেন প্রেসিডেন্ট

সময় সংবাদ

fb tw
somoy
প্রেসিডেন্ট ইভো মোরালেসের পদত্যাগের পর অশান্ত হয়ে উঠছে বলিভিয়া। সোমবার দেশটির বিভিন্ন শহরে পাল্টাপাল্টি বিক্ষোভ করে মোরালেস-সমর্থক ও বিরোধীরা। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে রাখতে ব্যাপক ধরপাকড় চালায় নিরাপত্তা বাহিনী। মোরালেসের ক্ষমতাচ্যুতির প্রতিবাদে বিক্ষোভ হয়েছে আর্জেন্টিনাতেও।
এমন পরিস্থিতিতে মেক্সিকোয় রাজনৈতিক আশ্রয় নিয়েছেন ইভো মোরালেস। ভেনেজুয়েলার দাবি, যুক্তরাষ্ট্রের সমর্থনে ও অর্থায়নে সামরিক অভ্যুত্থান ঘটানো হয়েছে বলিভিয়ায়।
প্রেসিডেন্ট ইভো মোরালেসের পদত্যাগের পর সোমবার বলিভিয়ার লা পাজ শহরে পাল্টাপাল্টি বিক্ষোভ শুরু হলে অভিযানে নামে নিরাপত্তা বাহিনী। বাড়ি বাড়ি তল্লাশি চালিয়ে আটক করা হয় অনেককে। 
এদের অধিকাংশই আদিবাসী জনগোষ্ঠীর লোক। তাদের বিরুদ্ধে লুটপাট, অগ্নিসংযোগ ও সরকারি স্থাপনায় হামলার অভিযোগ আনা হয়েছে। তবে অভিযোগ অস্বীকার করেছে আটককৃতরা।
একই দিন মোরালেসের পদত্যাগের প্রতিবাদে বিক্ষোভ হয় আর্জেন্টিনাতেও। দেশটিতে বসবাসরত বলিভিয়ানদের পাশাপাশি আর্জেন্টিনার সাধারণ মানুষও বিক্ষোভে অংশ নেয়। পরে বলিভিয়ার দূতাবাস অবরোধ করে তারা।
তারা বলছেন, বলিভিয়ার নিয়ন্ত্রণ আজ কট্টরপন্থীদের হাতে। বলিভিয়ার সার্বভৌমত্ব এবং যে গৌরব ছিল তা আজ হুমকির মুখে পড়লো। আমরা তাদের কাছে পরাজিত হবো না। বিশ্বাসঘাতক এবং বর্ণবাদীদের হাতে বলিভিয়ার নিয়ন্ত্রণ থাকতে পারে না।
চলমান এ উত্তেজনার মধ্যেই মেক্সিকোয় রাজনৈতিক আশ্রয় নিয়েছেন সদস্য পদত্যাগী প্রেসিডেন্ট ইভো মোরালেস। বলিভিয়া ছাড়ার সময় এক টুইট বার্তায় এ বাম নেতা বলেন, রাজনৈতিক কারণে দেশ ছেড়ে গেলেও প্রতিটি মুহূর্তে বলিভিয়ানদের খবর রাখবেন তিনি। জনগণের সমর্থন এবং শক্তি নিয়ে শিগগিরই দেশে ফেরার কথা জানান মোরালেস। তার রাজনৈতিক আশ্রয়ের আবেদন এরইমধ্যে অনুমোদন করেছে মেক্সিকো সরকার।
মেক্সিকোর পররাষ্ট্রমন্ত্রী মারসেলো ইবরার্ড বলেন, বলিভিয়ার সেনাপ্রধান প্রেসিডেন্ট ইভো মোরালেসকে পদত্যাগের আহ্বান জানিয়েছিলেন। গৃহযুদ্ধ এড়াতে তিনি পদত্যাগ করেছেন। সুতরাং এটি সামরিক অভ্যুত্থান ছাড়া আর কি হতে পারে? সেনাবাহিনীর ওই আহ্বান বলিভিয়ার সংবিধান বিরোধী। পুরো মহাদেশের গণতাত্রিক ব্যবথার জন্যই এটা এক বিপর্যয়। এর প্রভাব পুরো অঞ্চলে পড়তে পারে।
মোরালেসের পদত্যাগের প্রতিবাদ জানিয়েছে ভেনেজুয়েলা এবং আর্জেন্টিনা। ওয়াশিংটনের অর্থায়নে বলিভিয়ার নির্বাচিত প্রেসিডেন্টকে ক্ষমতাচ্যুত করা হয়েছে বলে মন্তব্য করেন ভেনেজুয়েলার প্রেসিডেন্ট নিকোলাস মাদুরো। আর এ জন্য আঞ্চলিক সংগঠন অর্গানাইজেশন অব আমেরিকান স্টেট-ও.এ.এস-কে হাতিয়ার হিসেবে ব্যবহার করা হয়েছে বলে মতব্য করেন তিনি।
ভেনেজুয়েলার প্রেসিডেন্ট নিকোলাস মাদুরো বলেন, প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প এক বিবৃতিতে বলিভিয়ার সামরিক অভ্যুত্থানকে অভিনন্দন জানিয়েছেন। এমন বিবৃতির নিন্দা জানাচ্ছি আমরা। হোয়াইট হাউজের সরাসরি নির্দেশনা এবং অর্থায়নে ইভো মোরালেসকে ক্ষমতাচ্যুত করা হয়েছে। গেল ১শ' বছর ধরে লাতিন আমেরিকা এবং ক্যারিবীয় অঞ্চলের দেশগুলোর সামরিক অভ্যুত্থানে এভাবেই সহযোগিতা করেছে যুক্তরাষ্ট্র।
এদিকে বলিভিয়ায়, সংঘাত-সহিংসতা যেন না ছড়িয়ে পড়ে এজন্য কার্যকর পদক্ষেপ নেয়ার পাশাপাশি সব পক্ষকে শান্ত থাকার আহ্বান জানিয়েছে জাতিসংঘ।

আরও সংবাদ

বাংলার সময়
বাণিজ্য সময়
বিনোদনের সময়
খেলার সময়
আন্তর্জাতিক সময়
মহানগর সময়
অন্যান্য সময়
তথ্য প্রযুক্তির সময়
রাশিফল
লাইফস্টাইল
ভ্রমণ
প্রবাসে সময়
সাক্ষাৎকার
মুক্তকথা
বাণিজ্য মেলা
রসুই ঘর
বিশ্বকাপ গ্যালারি
বইমেলা
উত্তাল মার্চ
সিটি নির্বাচন
শেয়ার বাজার
জাতীয় বাজেট
বিপিএল
শিক্ষা সময়
ভোটের হাওয়া
স্বাস্থ্য
ধর্ম
চাকরি
পশ্চিমবঙ্গ
ফুটবল বিশ্বকাপ
ভাইরাল
সংবাদ প্রতিনিধি
বিশ্বকাপ সংবাদ
Latest News
আপনিও লিখুন
ছবি ভিডিও টিভি
মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন
GoTop