মহানগর সময়‘নিয়ম মেনে ভবন তৈরি না করায় গ্যাস লাইনে বিস্ফোরণ’

সফিকুল আলম

fb tw
চট্টগ্রামের পাথরঘাটায় গ্যাসের পাইপলাইন বিস্ফোরণে একটি ভবনের একাংশ ধসে শিশুসহ ৭ জন নিহত হয়েছেন। তাদের সবাই পথচারী বলে জানিয়েছে পুলিশ।
এ ঘটনায় একজন দগ্ধসহ আহত হয়েছেন অন্তত ২৫ জন। আহতদের বেশ কয়েকজনের অবস্থা আশঙ্কাজনক।
নিয়ম মেনে ভবন তৈরি না করায় এমন দুর্ঘটনা ঘটছে বলে জানিয়েছে সিডিএ। দুর্ঘটনার কারণ অনুসন্ধানে আলাদা ৩টি তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে।
রোববার (১৭ নভেম্বর) সকাল ৯টার দিকে চট্টগ্রাম নগরীর পাথরঘাটার ব্রিকফিল্ড রোডে গ্যাস লাইনে হঠাৎ বিকট শব্দে বিস্ফোরণ হয়।
স্থানীয়রা জানান, এতে বড়ুয়া ভবনের নিচতলার একটি অংশসহ আশ-পাশের আরো তিন-চারটি বাড়ির দেয়াল ধসে পড়ে। ধ্বংসস্তুপে চাপা পড়ে ও দগ্ধ হয়ে ভবনের নিচতলার বাসিন্দা এবং পথচারীসহ ৭ জন ঘটনাস্থলেই মারা যান।
তারা বলেন, এমন জোরে বিস্ফোরণ হয়েছে, চারপাশ কালো ধোঁয়ায় ভরে গেছে।
খবর পেয়ে ফায়ার সার্ভিসের চারটি ইউনিটের সদস্য ও স্থানীয়রা একজন দগ্ধসহ আহত অন্তত ২৫ জনকে উদ্ধার করে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করেন।
আগ্রাবাদ ফায়ার সার্ভিসের উপ-পরিচালক পূর্ণ চন্দ্র মুৎসদ্দি বলেন, শুধু গ্যাস লাইনের দোষ দিলে হবে না, দেখতে হবে এখানে কোনো লিকেজ ছিল কিনা? বা কেউ কোনো স্যাবটাজ করেছে কিনা তা খতিয়ে দেখা হচ্ছে।
চট্টগ্রামের জেলা প্রশাসক মো. ইলিয়াস হোসেন বলেন, নিহত সাতজনকে দাফনের জন্য ২০ হাজার টাকা করে অনুদান দেয়া হচ্ছে। আহতদের চিকিৎসার জন্য যথাযথ ব্যবস্থা গ্রহণ করেছি।
এদিকে, দুর্ঘটনার পরপরই ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন সিটি মেয়র ও সিডিএ'র একটি টিম। নিয়ম মেনে ভবন তৈরি না করায় এ দুর্ঘটনা ঘটে বলে জানায় সিডিএ।
সিডিএ-র প্রধান প্রকৌশলী শাহিনুল ইসলাম খান বলেন, রাস্তার উপর একটা সেপটিক ট্যাঙ্ক করা হয়েছে। এটি সব সময় বিপদজনক গ্যাস সৃষ্টি করে। তার পাশে রাখা হয়েছে গ্যাসের রাইজার। এবং রাস্তার পাশেই কিচেন। প্রতিটা পরিস্থিতিই দুর্ঘটনা ঘটানোর জন্য যথেষ্ট।
কর্ণফুলী গ্যাস ডিস্ট্রিবিউশন কোম্পানি লিমিটেডের উপ মহাব্যবস্থাপক মোহাম্মদ নুরুল আফসার সিকদার বলেন, রাইজার যদি ইনটেক্ট থাকে তাহলে আমাদের গ্যাস লাইন থেকে বিস্ফোরণ ঘটেছে এটা বলা যায় না।
চট্টগ্রামের মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দীন বলেন, তদন্ত কমিটি যৌক্তিক সময়ের মধ্যে তদন্ত করে দ্রুত রিপোর্ট প্রদান করবে।
বিস্ফোরণের কারণে বড়ুয়া ভবনের পাশ্ববর্তী জসিম ভবন, চৌধুরী মঞ্জিল ও বাদশা ভবনেরও ক্ষয়ক্ষতি হয়।
দুর্ঘটনার কারণ অনুসন্ধানে কাজ করছেন জেলা প্রশাসন, সিটি কর্পোরেশন ও কর্ণফুলী গ্যাস সিস্টেমের তিনটি আলাদা কমিটি।

আরও সংবাদ

বাংলার সময়
বাণিজ্য সময়
বিনোদনের সময়
খেলার সময়
আন্তর্জাতিক সময়
মহানগর সময়
অন্যান্য সময়
তথ্য প্রযুক্তির সময়
রাশিফল
লাইফস্টাইল
ভ্রমণ
প্রবাসে সময়
সাক্ষাৎকার
মুক্তকথা
বাণিজ্য মেলা
রসুই ঘর
বিশ্বকাপ গ্যালারি
বইমেলা
উত্তাল মার্চ
সিটি নির্বাচন
শেয়ার বাজার
জাতীয় বাজেট
বিপিএল
শিক্ষা সময়
ভোটের হাওয়া
স্বাস্থ্য
ধর্ম
চাকরি
পশ্চিমবঙ্গ
ফুটবল বিশ্বকাপ
ভাইরাল
সংবাদ প্রতিনিধি
বিশ্বকাপ সংবাদ
Latest News
আপনিও লিখুন
ছবি ভিডিও টিভি
মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন
GoTop