বাংলার সময়শিবচরে তাঁতপল্লী নির্মাণের জমি অধিগ্রহণে অনিয়ম

সময় সংবাদ

fb tw
somoy
নেই দরজা-জানালা, নেই বিদ্যুৎ সংযোগও। এমনকি ঘরে থাকেন না কেউ। অথচ, এসবকে পুরানো স্থাপনা ও বসতঘর দেখিয়ে সরকারের কাছ থেকে কোটি কোটি টাকা হাতিয়ে নেয়ার চক্রান্ত করছে একটি সিন্ডিকেট। এমনই অভিনব কায়দায় গণপূর্ত বিভাগ, অসাধু জমির মালিক ও দালাল চক্রের মাধ্যমে চলছে মাদারীপুরের শিবচরে শেখ হাসিনা তাঁতপল্লী নির্মাণে জমি অধিগ্রহণের কার্যক্রম। সময় সংবাদের অনুসন্ধানে উঠে এসেছে এমন চাঞ্চল্যকর তথ্য। যদিও ব্যবস্থা গ্রহণের আশ্বাস দিয়েছেন সংসদের চীফ হুইপ।
মাদারীপুরের কুতুবপুরের ৬০ একর ও শরিয়তপুরের নাওডোবার ৬০ একর জমি অধিগ্রহণের পর সরকার নির্মাণ করতে যাচ্ছে শেখ হাসিনা তাঁতপল্লী। এই 
তাঁতপল্লীর প্রস্তাবিত খালি জমির উপর শত শত গাছপালা রোপণ ও নতুন ঘরবাড়ি তুলে সরকারের কাছ অতিরিক্ত অর্থ আদায়ের পাঁয়তারা করছে স্থানীয়রা।
বিষয়টি স্থানীয় সংসদ সদস্য ও প্রশাসনের নজরে আসলে তা ভেঙে গুঁড়িয়ে দেয়া হয়। পরে আবারো রাতের আধারে একই স্থানে নির্মাণ করা হয় বহু ঘরবাড়ি, পুকুরসহ বিভিন্ন স্থাপনা। কিন্তু এসব ঘরে থাকেন না কেউ। বড় বড় সাইনবোর্ড থাকলেও পুকুরে নেই কোন মাছ। অথচ, এসব স্থাপনার জন্য কোটি কোটি টাকা ক্ষতিপূরণ দিতে প্রস্তাব করেছে জেলার গণপূর্ত বিভাগ।
অভিযোগ উঠেছে, এক শ্রেণির দালাল, অসাধু জমির মালিকদের সাথে হাত মিলিয়ে গণপূর্ত বিভাগ দীর্ঘদিন ধরে এমন কাজ করছে অহরহ।
স্থানীয় একজন বলেন, বর্তমানে তারা এখানে পুকুর কাটছে। আগে কিন্তু কোন পুকুর ছিল না। এখানে সবই জমি ছিল।
তবে, জেলা প্রশাসনের দাবি, স্বচ্ছতার সাথে ক্ষতিপূরণ আইন মেনে বিল দেয়ার প্রস্তাব করা হয়েছে।
মাদারীপুর জেলা প্রশাসক মো. ওয়াহিদুল ইসলাম বলেন, আমার জানা মতে, পুরনো যে ঘর বাড়িগুলো ছিল, সেগুলোর জন্য ক্ষতিপূরণ নির্ধারণ করেছে গণপূর্ত বিভাগ। মোট যে ক্ষতিপূরণ নির্ধারণ করা হয়েছে, তার তাদের নিকট প্রেরণ করা হয়েছে। তাই আমরা মনে করি এখানে যা কিছু হয়েছে। সব সচ্ছতার সাথে হয়েছে।
তবে এই জমিতে পুরনো স্থাপনা ছিল কিনা তা যাচাই-বাছাই করে ব্যবস্থা গ্রহণের আশ্বাস দিয়েছেন মাদারীপুর-১ আসনের সংসদ সদস্য ও চীফ হুইফ।
জাতীয় সংসদ চীফ হুইফ এমপি নুর-ই-আলম চৌধুরী বলেন, গণপূর্তের সঙ্গে যদি ডিসি অফিসের সমন্বয় না থাকে, তাহলে তো এটা হওয়ার সুযোগ থাকবে। তারপরও এ বিষয়ে আমরা দেখবো।
এ ব্যাপারে বারবার গণপূর্ত বিভাগের অফিসে গিয়েও কোন কর্মকর্তার বক্তব্য পাওয়া যায়নি।

আরও সংবাদ

বাংলার সময়
বাণিজ্য সময়
বিনোদনের সময়
খেলার সময়
আন্তর্জাতিক সময়
মহানগর সময়
অন্যান্য সময়
তথ্য প্রযুক্তির সময়
রাশিফল
লাইফস্টাইল
ভ্রমণ
প্রবাসে সময়
সাক্ষাৎকার
মুক্তকথা
বাণিজ্য মেলা
রসুই ঘর
বিশ্বকাপ গ্যালারি
বইমেলা
উত্তাল মার্চ
সিটি নির্বাচন
শেয়ার বাজার
জাতীয় বাজেট
বিপিএল
শিক্ষা সময়
ভোটের হাওয়া
স্বাস্থ্য
ধর্ম
চাকরি
পশ্চিমবঙ্গ
ফুটবল বিশ্বকাপ
ভাইরাল
সংবাদ প্রতিনিধি
বিশ্বকাপ সংবাদ
Latest News
আপনিও লিখুন
ছবি ভিডিও টিভি
মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন
GoTop