মহানগর সময়‘পরিবহন শ্রমিকদের আন্দোলন অযৌক্তিক’

সময় সংবাদ

fb tw
আইন কার্যকরের শুরুতেই পরিবহন শ্রমিকদের আন্দোলনকে অযৌক্তিক বলে মন্তব্য করেছেন পুলিশের সাবেক মহাপরিদর্শক এ কে এম শহিদুল হক। আইনটি এখনও অসম্পূর্ণ উল্লেখ করে পরিবহন বিশেষজ্ঞরা বলছেন, অবকাঠামোগত উন্নয়ন ছাড়া এ আইন পুরোপুরি কার্যকর সম্ভব নয়।
এক বছর আগে জাতীয় সংসদে পাস হয় সড়ক পরিবহন আইন ২০১৮। এর মধ্যে জাতীয় সড়ক নিরাপত্তা কাউন্সিলের ২৭টিরও বেশি সভা হয়েছে। পরিবহনখাতের অংশীজনদের নিয়ে এ সভার প্রতিটিতেই আলোচনা হয়েছে আলোচিত সড়ক আইন নিয়ে। একই মঞ্চে সরকারি প্রতিনিধিদল ও পরিবহন মালিক শ্রমিকদের বিবৃতি দিতে দেখা গেছে একই সুরে।
তবে নভেম্বর থেকে এ আইন বাস্তবায়নের সিদ্ধান্ত আসার পর অনেকটাই ভিন্ন মেরুতে পরিবহনখাত সংশ্লিষ্টরা। বিশেষজ্ঞরা বলছেন, শুরু থেকেই এ আইনকে মনে প্রাণে মানতে পারেননি পরিবহন নেতারা।
সাবেক আইজিপি এ কে এম শহিদুল হক বলেন, আইনটা হোক। পরিবহন মালকিরা কতটুকু ক্ষতিগ্রস্ত হয় তারা দেখুক। শুরুতেই এমন কেনো করবে। তারাতো কমিটিতে ছিল। ক্ষতিগ্রস্ত হতে পারে ভেবে শ্রমিকদের ভুল বুঝিয়ে জিম্মি করতে চাইছে।’
এক বছর পরও সড়ক আইনে তৈরি হয়নি পূর্ণাঙ্ক বিধিমালা। তারা মনে করছেন, আইন কার্যকরের জন্য প্রয়োজনীয় অবকাঠামোর এখনও অভাব আছে।
পরিবহন বিশেষজ্ঞ সাইফুন নেওয়াজ বলেন, ‘আমাদের লাইসেন্সগুলো এখনও সিঙ্কোনাইজ করা হয়নি। আইন প্রয়োগের জন্য সফটওয়্যারটা আপডেট করা হয়নি।’
বাসচাপায় শিক্ষার্থী নিহতের ঘটনায় ছাত্র বিক্ষোভের প্রেক্ষিতে গেল বছরের অক্টোবরের দিকে জাতীয় সংসদে পাস হয় সড়ক পরিবহন আইন ২০১৮।

আরও সংবাদ

বাংলার সময়
বাণিজ্য সময়
বিনোদনের সময়
খেলার সময়
আন্তর্জাতিক সময়
মহানগর সময়
অন্যান্য সময়
তথ্য প্রযুক্তির সময়
রাশিফল
লাইফস্টাইল
ভ্রমণ
প্রবাসে সময়
সাক্ষাৎকার
মুক্তকথা
বাণিজ্য মেলা
রসুই ঘর
বিশ্বকাপ গ্যালারি
বইমেলা
উত্তাল মার্চ
সিটি নির্বাচন
শেয়ার বাজার
জাতীয় বাজেট
বিপিএল
শিক্ষা সময়
ভোটের হাওয়া
স্বাস্থ্য
ধর্ম
চাকরি
পশ্চিমবঙ্গ
ফুটবল বিশ্বকাপ
ভাইরাল
সংবাদ প্রতিনিধি
বিশ্বকাপ সংবাদ
Latest News
আপনিও লিখুন
ছবি ভিডিও টিভি
মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন
GoTop