ksrm

সিটি নির্বাচনউৎসাহ উদ্দীপনার মধ্যে শেষ হয়েছে কুসিক নির্বাচন

সময় সংবাদ

fb tw
বিপুল উৎসাহ উদ্দীপনা আর বিচ্ছিন্ন ঘটনার মধ্য দিয়ে শেষ হয়েছে কুমিল্লা সিটি কর্পোরেশন নির্বাচন। ছিলো প্রধান দুই প্রতিপক্ষের ফলাফল মেনে নেয়ার অভিমত আর অভিযোগ । তবে শেষ পর্যন্ত  সিটি কর্পোরেশনের মঙ্গলের জন্য কাজ করবেন এমন যোগ্য প্রার্থীই পরবর্তী নগরপিতার দায়িত্ব নেবেন, এমনটাই প্রত্যাশা নগরবাসীর।
কুমিল্লা সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনের শেষ দিকে দুই ওয়ার্ড কমিশনারদের মধ্যে আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে ধাওয়া পাল্টা ধাওয়া ও ইটপাটকেল নিক্ষেপের ঘটনা ঘটে। এ সময় পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে কাঁদানি গ্যাস ও টিয়ারশেল ছোড়ে পুলিশ।
এর আগে দিন ব্যাপী উৎসাহ উদ্দীপনার মধ্য দিয়ে অনুষ্ঠিত হয় কুমিল্লা সিটি কর্পোরেশন নির্বাচন। সকাল আটটা থেকেই কেন্দ্রগুলোতে ছিল ভোটারদের লম্বা লাইন। ২৭ টি ওয়ার্ডে ১০৩ টি ভোটকেন্দ্রে ভোট গ্রহণ অনুষ্ঠিত হয়। ২০১২ সালের পর এটি ২য় বারের মতো নগরপিতা নির্বাচন,  তাই উৎসাহ উদ্দীপনার কমতি ছিলোনা ভোটারদের মধ্যে। ভোটাররা বলেন, 'শান্তিপূর্ণ ভাবে ভোট দিলাম, ভালো লাগছে। দেশের উন্নয়নের জন্যে ভোট দিতে আসছি। এলাকার উন্নয়নে কাজ করতে পারবে বলে ভোট দিয়েছি।'
৫৩ দশমিক ৪ বর্গ কিলোমিটারের এই শহরটিতে বর্তমানে রয়েছে ৪ লক্ষাধিক মানুষের বসবাস। ভোটার ২ লাখ ৭ হাজার ৫৬৬ জন।  এবারের নির্বাচনে প্রথমবারের মতো দলীয় প্রতীকে অংশ নেন মেয়র প্রার্থীরা। ভোটারদের চোখ প্রধান দুই রাজনৈতিক দলের সমর্থিত প্রার্থীর দিকে।ছিল প্রার্থীদের মাঝে অভিযোগ পাল্টা অভিযোগ। সকালে নিজেদের নির্বাচনী এলাকায় ভোট দেন আওয়ামী লীগ মেয়র প্রার্থী আঞ্জুম সুলতানা সীমা। জানান, কুমিল্লা সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনে ভোটাররা যে রায় দেবেন তা মেনে নেবেন । সীমা বলেন, 'কুমিল্লার জনগণ যা রায় দেবেন আমি মাথা পেতে নেবো। আমার দলীয় নেতাকর্মীরাও আমার এই কথাকে সমর্থন দেবে।'
অন্যদিকে নির্বাচন নিয়ে অভিযোগ ছিল বিএনপির সমর্থিত প্রার্থী মনিরুল হক সাক্কু'র।তিনি বলেন, 'নির্বাচন কমিশন কথা রাখেনি। উপরে ভালো ভিতরে কারচুপি হচ্ছে।'
এদিকে নির্বাচন চলাকালীন সময়ে ককটেল বিস্ফোরণের কারণে দুটি কেন্দ্রের ভোটগ্রহণ স্থগিত করা হয়। এই কেন্দ্রে ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়ার ঘটনা ঘটলেও তা সার্বিক নির্বাচন পরিস্থিতিতে তেমন প্রভাব ফেলেনি। এবারের নির্বাচনে মেয়র পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেন চারজন প্রার্থী। কাউন্সিলর ১১৪ জন এবং ৪০ জন সংরক্ষিত কাউন্সিলর প্রার্থী অংশ নিচ্ছেন এই নির্বাচনে।
 

আরও সংবাদ

বাংলার সময়
বাণিজ্য সময়
বিনোদনের সময়
খেলার সময়
আন্তর্জাতিক সময়
মহানগর সময়
অন্যান্য সময়
তথ্য প্রযুক্তির সময়
রাশিফল
লাইফস্টাইল
ভ্রমণ
প্রবাসে সময়
সাক্ষাৎকার
মুক্তকথা
বাণিজ্য মেলা
রসুই ঘর
বিশ্বকাপ গ্যালারি
বইমেলা
উত্তাল মার্চ
সিটি নির্বাচন
শেয়ার বাজার
জাতীয় বাজেট
বিপিএল
শিক্ষা সময়
ভোটের হাওয়া
স্বাস্থ্য
ধর্ম
চাকরি
পশ্চিমবঙ্গ
ফুটবল বিশ্বকাপ
ভাইরাল
সংবাদ প্রতিনিধি
বিশ্বকাপ সংবাদ
Latest News
আপনিও লিখুন
ছবি ভিডিও টিভি
মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন
GoTop