ধর্মহাদিসের অপব্যবহার রুখতে সৌদিতে ধর্মীয় কর্তৃপক্ষ গঠন

ওয়েব ডেস্ক

fb tw
somoy
নবী মুহাম্মদের যেসব বাণী সংকলন করা হয়েছে, সেগুলি 'হাদিস' হিসেবে পরিচিত। ইসলামে কোরআনের পর এই হাদিসকেই বিভিন্ন বিষয়ে ধর্মীয় নীতি বা ব্যাখ্যার জন্য নির্ভরযোগ্য সূত্র হিসেবে ব্যবহার করা হয় । তবে বিভিন্ন রকম হাদিসের ব্যাখ্যা নিয়ে ধর্মীয় পণ্ডিতদের মধ্যে মতপার্থক্য আছে।
সৌদি কর্তৃপক্ষ মনে করে জঙ্গী গোষ্ঠীগুলো যেভাবে হাদিসের অপব্যাখ্যা দিয়ে সন্ত্রাসবাদের পক্ষে সাফাই গাওয়ার চেষ্টা করে সেটা বন্ধে কার্যকর ব্যবস্থা দরকার।
এজন্য সৌদি সরকার একটি নতুন ধর্মীয় কর্তৃপক্ষ গঠন করেছে।
বাদশাহ সালমান পবিত্র মদিনা নগরী থেকে জারি করা এক ফরমান বলে এই ঘোষণা দেন। সারা বিশ্বের নামকরা ইসলামী চিন্তাবিদদের এই প্রতিষ্ঠানে নিয়োগ করা হবে।
সৌদি তথ্য মন্ত্রণালয় বলছে, সহিংসতা এবং অপরাধের পক্ষে সাফাই হিসেবে যেসব ভুয়া ইসলামী লেখার বরাত দেয়া হয়, সেগুলো নির্মূল করা হবে এই প্রতিষ্ঠানের কাজ।
উল্লেখ্য আল কায়েদা এবং ইসলামিক স্টেটের মতো জঙ্গী গোষ্ঠীগুলো নবী মুহাম্মদের হাদিস এবং অন্যান্য ধর্মীয় লেখা ব্যাখ্যা করে তাদের কার্যক্রমের যৌক্তিকতা তুলে ধরার চেষ্টা করে।
সূত্রঃ বিবিসি

আরও সংবাদ

বাংলার সময়
বাণিজ্য সময়
বিনোদনের সময়
খেলার সময়
আন্তর্জাতিক সময়
মহানগর সময়
অন্যান্য সময়
তথ্য প্রযুক্তির সময়
রাশিফল
লাইফস্টাইল
ভ্রমণ
প্রবাসে সময়
সাক্ষাৎকার
মুক্তকথা
বাণিজ্য মেলা
রসুই ঘর
বিশ্বকাপ গ্যালারি
বইমেলা
উত্তাল মার্চ
সিটি নির্বাচন
শেয়ার বাজার
জাতীয় বাজেট
বিপিএল
শিক্ষা সময়
ভোটের হাওয়া
স্বাস্থ্য
ধর্ম
চাকরি
পশ্চিমবঙ্গ
ফুটবল বিশ্বকাপ
সংবাদ প্রতিনিধি
বিশ্বকাপ সংবাদ
মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন
GoTop