ksrm

খেলার সময়আবারো সভাপতি নির্বাচিত হয়ে যা বললেন পাপন

খেলার সময় ডেস্ক

fb tw
somoy
বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় দ্বিতীয়বারের মত বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের সভাপতি হলেন নাজমুল হাসান পাপন। নির্বাচনের পর পরিচালনা পরিষদের প্রথম সভা থেকে আসে এ সিদ্ধান্ত।
সভাশেষে পাপন বলেন, 'যেহেতু কোন প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী ছিলো না সেহেতু আমি আবার নির্বাচিত হয়েছি। ভালো লাগছে।'
এর আগে বিসিবি সভাপতি বলেছিলেন, ‘পরিচালনা পর্ষদের প্রায় সব সদস্যের সঙ্গে কথা বলেছি। কেউ সভাপতি পদে প্রর্থী হতে চান না। বরং তাঁরা সবাই আমাকেই দায়িত্ব নিতে বলছেন, তাই আমিই...(থেমে যান তিনি)।’
আগেই অনুমান করা গিয়েছিলো আগেই, তৃতীয় মেয়াদে বিসিবি'র সভাপতির দায়িত্ব পেতে যাচ্ছেন নাজমুল হাসান। শেষ পর্যন্ত হলোও তাই। নাজমুল হাসান ২০১২ সালে প্রথম বিসিবি সভাপতির দায়িত্ব পেয়েছিলেন। সরকারের মনোনয়নে সেবার আ হ ম মুস্তফা কামালের স্থলাভিষিক্ত হয়েছিলেন তিনি। অবশ্য পরের বছরই নির্বাচনের জয়ী হয়ে দেশের ক্রিকেটের নিয়ন্ত্রক সংস্থার সভাপতি হন। তিনিই বিসিবির প্রথম নির্বাচিত সভাপতি।
নাজমুল হাসান জানান, ক্রিকেট অপারেশন্স ছাড়া স্ট্যান্ডিং কমিটির অন্য পদগুলোতে আসবে বড় ধরণের পরিবর্তন। পরবর্তী সভায় সহ-সভাপতি পদে নির্বাচন ও কমিটিগুলো পুনর্গঠন করা হবে।
তিনি বলেন, 'অপারেশন্সে খুব একটা নাড়াচাড়া করা হবে বলে এই মুহূর্তে আমার মনে হচ্ছে না। বাকিগুলোতে বড় ধরণের পরিবর্ত হবে। আমরা নতুন মুখ চেষ্টা করবো, পুরাতন-নতুন মিলিয়ে চেষ্টা করবো, ওলট-পালট করে চেষ্টা করবো। তবে যেটা ভালো মনে হবে সেটাই আমরা করবো।'
নতুন মেয়াদের ছয়মাসের মধ্যে আঞ্চলিক ক্রিকেট সংস্থা গঠনের প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন তিনি।
'আমাদের প্রাথমিক কাজ হবে রিজিওনাল ক্রিকেট অ্যাসোসিয়েশন। আমরা চেষ্টা করবো আগামী ছয় মাসের মধ্যে এটা সম্পন্ন করে ফেলতে।'
এদিকে বিসিবির পরিচালনা পর্ষদের নির্বাচনে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় ২০ জন নির্বাচিত হয়েছেন। শুধু ঢাকা ভিভাগের দু'জন এবং বরিশাল বিভাগের একজনকে প্রতিদ্বন্দ্বিতার মুখে পড়তে হয়। এতে ঢাকা বিভাগ থেকে জয়ী হয়েছেন জাতীয় দলের সাবেক অধিনায়ক নাঈমুর রহমান দুর্জয় ও সৈয়দ আশফাকুল ইসলাম এবং বরিশাল বিভাগ থেকে আলমগীর হোসেন আলো।
এর আগে যাঁরা বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হয়েছেন তারা হলেন-
ক্যাটাগরি-১ : শফিউল আলম চৌধুরী (সিলেট বিভাগ), আকরাম খান ও আ জ ম নাছির উদ্দিন (চট্টগ্রাম বিভাগ), কাজী ইনাম আহমেদ ও শেখ সোহেল (খুলনা বিভাগ), সাইফুল আলম স্বপন (রাজশাহী বিভাগ) ও অ্যাডভোকেট আনোয়ারুল ইসলাম (রংপুর বিভাগ)।
 
ক্যাটাগরি-২ : আফজাল-উর-রহমান সিনহা, গাজী গোলাম মুর্তজা, হানিফ ভূঁইয়া, ইসমাইল হায়দার মল্লিক, জালাল ইউনুস, লোকমান হোসেন ভূঁইয়া, মাহবুবউল আনাম, মনজুর কাদের, নজীব আহমেদ, নাজমুল হাসান পাপন, শওকত আজিজ রাসেল ও তানজিল চৌধুরী।
 
ক্যাটাগরি-৩ : খালেদ মাহমুদ সুজন।
 
জাতীয় ক্রীড়া পরিষদের মনোনীতরা হলেন আহমেদ সাজ্জাদুল আলম ববি ও এনায়েত হোসেন সিরাজ।

আরও সংবাদ

বাংলার সময়
বাণিজ্য সময়
বিনোদনের সময়
খেলার সময়
আন্তর্জাতিক সময়
মহানগর সময়
অন্যান্য সময়
তথ্য প্রযুক্তির সময়
রাশিফল
লাইফস্টাইল
ভ্রমণ
প্রবাসে সময়
সাক্ষাৎকার
মুক্তকথা
বাণিজ্য মেলা
রসুই ঘর
বিশ্বকাপ গ্যালারি
বইমেলা
উত্তাল মার্চ
সিটি নির্বাচন
শেয়ার বাজার
জাতীয় বাজেট
বিপিএল
শিক্ষা সময়
ভোটের হাওয়া
স্বাস্থ্য
ধর্ম
চাকরি
পশ্চিমবঙ্গ
ফুটবল বিশ্বকাপ
ভাইরাল
সংবাদ প্রতিনিধি
বিশ্বকাপ সংবাদ
Latest News
আপনিও লিখুন
ছবি ভিডিও টিভি
মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন
GoTop