বাণিজ্য সময়ভেজাল পণ্যে সয়লাব কসবা সীমান্ত হাট!

বাণিজ্য সময় ডেস্ক

fb tw
ব্রাহ্মণবাড়িয়ার কসবা সীমান্ত হাটে ভারতীয় ক্রেতা কম আসায় লোকসান গুণতে হচ্ছে দেশীয় ব্যবসায়ীদের। এতে সীমান্ত হাটে বাণিজ্য ঘাটতির পাশাপাশি বিপুল পরিমাণ রাজস্ব হারাচ্ছে সরকার। বাজার তদারকির পাশাপাশি দু'দেশের স্বার্থ সংশ্লিষ্ট বিষয় নিয়ে আলোচনা চলছে বলে জানিয়েছে প্রশাসন।
দুর্গম এলাকায় স্থানীয় জনগোষ্ঠীর উৎপাদিত পণ্য বাজারজাত করার মাধ্যমে উভয় দেশ উপকৃত হবে এমন চিন্তা থেকেই ২০১৫ সালের ১১ই জুন থেকে ব্রাহ্মণবাড়িয়ার কসবার তারাপুর সীমান্তের শূন্য রেখায় চালু হয় সীমান্ত হাট। সেই থেকে প্রতি রোববার বসে এ সীমান্তের হাট।
শুরুতে হাটে উভয় দেশের ক্রেতাদের উপস্থিতি বেশি থাকলেও বর্তমানে তার ভারতীয় ক্রেতা কমে গেছে আশংকাজনভাবে। এতে লাভবান হতে পারছেন না বাংলাদেশী ব্যবসায়ীরা।
এদিকে হাটে ভারতীয় ব্যবসায়ীরা তাদের পণ্যের চাহিদা বেশি থাকার সুযোগে ভেজাল ও মেয়াদউত্তীর্ণ পণ্য বিক্রি করছেন বলে অভিযোগ করেছেন বাংলাদেশী ক্রেতারা। সীমান্ত হাটের এই বাণিজ্য বৈষম্যের কারণে বাংলাদেশ সরকার রাজস্ব হারাচ্ছে বলে মনে করেন বাজার বিশ্লেষক ও ব্যবসায়ী নেতারা। এদিকে দু'দেশের বাণিজ্য ব্যবধান কমাতে বাজার তদারকির পাশাপাশি স্বার্থ সংশ্লিষ্ট বিষয় নিয়ে আলোচনা চলছে বলে জানালেন এ কর্মকর্তা।
ব্রাহ্মণবাড়িয়ার অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট ড. মোহাম্মদ শাহানুর আলম বলেন, 'আমরা আমাদের কনসার্নটা ওনাদের জানিয়ে দিয়েছি। ওনাদের যে কসমেটিক্স আছে, সেগুলো ইম্পোর্ট ডিউটি ছাড়া এদিকে আসছে, এতে উভয়ই আমরা রাজস্ব হারাচ্ছি। এতে তারাও সমর্থন দিয়েছেন।'
হাট কমিটির তথ্য অনুযায়ী ১১২টি হাটে বাংলাদেশি ক্রেতারা প্রায় ১২ কোটি টাকার পণ্য ক্রয় করলেও ভারতীয় ক্রেতারা ক্রয় করেছেন মাত্র ১ কোটি ৯৭ লাখ টাকার পণ্য।
ফাএ/

আরও সংবাদ

বাংলার সময়
বাণিজ্য সময়
বিনোদনের সময়
খেলার সময়
আন্তর্জাতিক সময়
মহানগর সময়
অন্যান্য সময়
তথ্য প্রযুক্তির সময়
রাশিফল
লাইফস্টাইল
ভ্রমণ
প্রবাসে সময়
সাক্ষাৎকার
মুক্তকথা
বাণিজ্য মেলা
রসুই ঘর
বিশ্বকাপ গ্যালারি
বইমেলা
উত্তাল মার্চ
সিটি নির্বাচন
শেয়ার বাজার
জাতীয় বাজেট
বিপিএল
শিক্ষা সময়
ভোটের হাওয়া
স্বাস্থ্য
ধর্ম
চাকরি
পশ্চিমবঙ্গ
ফুটবল বিশ্বকাপ
সংবাদ প্রতিনিধি
বিশ্বকাপ সংবাদ
মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন
GoTop