ksrm

খেলার সময়সিলেটবাসীর মন খারাপ!

খেলার সময় ডেস্ক

fb tw
somoy
গেলো পাঁচ দিন ক্রিকেট উৎসবে বুদ হয়েছিলো পুরো সিলেটবাসী। খুলনা টাইটানস আর সিলেট সিক্সার্সের মধ্যকার ম্যাচ দিয়ে শেষ হলো বিপিএলের এবারের আসরের সিলেট পর্ব। ক্রিকেটের মিলন মেলা ভাঙ্গায় তাই সিলেটবাসীর মন কিছুটা খারাপ হতেই পারে।
৪ নভেম্বর সিলেট আন্তর্জাতিক ক্রিকেট স্টেডিয়ামে শুরু হয় বিপিএলের পঞ্চম আসর। তারও আগে থেকেই সুরমা পাড়ে শুরু হয়ে যায় উৎসব। রীতিমত যুদ্ধ করে একেকটি টিকেট সংগ্রহ করে গ্যালারিতে বসে খেলা দেখে সিলেটবাসী। উদ্বোধন থেকে শেষ দিন পর্যন্ত সিলেটজুড়ে ছিলো ক্রিকেট নিয়ে মাতামাতি। আর স্টেডিয়ামে ছিলো দর্শকদের উপচে পড়া ভিড়। উন্মাদনা এমন পর্যায়ে পৌঁছায় যে, টিকেট না পাওয়া দর্শকরা পুলিশের বাধার পরেও ঝুঁকি নিয়ে সীমানা প্রাচীর টপকাতে পিছপা হননি।
বুধবার সিলেট পর্ব শেষ হয়ে যাওয়ায় মন খারাপ সবার। আহা! আরো কয়েকটা ম্যাচ যদি হতো এখানে। চারদিকে শুধু আক্ষেপ আর আক্ষেপ। সবার একটাই কথা, বিপিএলের পর এবার আন্তর্জাতিক ক্রিকেট চাইই চাই।
'বিপিএলটা আমাদের সিলেটে হয়েছে। খুবই ভালো হয়েছে। দারুণ উৎসব হয়েছে। আমরা খুবই উপভোগ করেছি।' বলছিলেন এক জন দর্শক।
অপর একজন বলেন, 'খারাপ লাগছে। সিলেটে এমন খেলা হয় না বা আর খেলা হবে না সেটা ভেবেই।'
চেহারায় সিলেট সিক্সার্সের পতাকা একে খেলা দেখতে আসা আরেক সমর্থক বলেন, 'চার ম্যাচ (সিলেট সিক্সার্সের) দেখে আমাদের আসলে পোষায়নি। মনও ভরেনি। আমরা চাই ভবিষ্যতে যেনো আমাদের জন্য আরো ম্যাচ বাড়িয়ে দেয়া হয়।'
নিরাপত্তার প্রসঙ্গ তুলে আরেক দর্শক বলেন, 'আমাদের সিলেটে আগামী শ্রীলঙ্কা সিরিজের একটা ম্যাচ অন্তত হোক। নিরাপত্তা হোক আর যাই হোক আমরা দেবো।'
গ্যালারিভর্তী দর্শকের মাঝে খেলে অভিভূত রংপুর রাইডার্সের অধিনায়ক মাশরাফিও। প্রশংসায় ভাসালেন পুণ্যভূমির মানুষকে।
'সম্ভবত বাংলাদেশের সেরা স্টেডিয়ামগুলোর একটা। কারণ, যদিও এখানে এর আগে খেলা হয়নি। এর আগেও খেলেছি কিন্তু এখন অনেক বেশি গোছানো।' বলছিলেন মাশরাফি।
নৈসর্গিক সৌন্দর্যে ঘেরা স্টেডিয়ামের প্রেস বক্সে বসে চারদিন খেলার সংবাদ সংগ্রহ করেছেন দেশের গুণীসব ক্রীড়া সাংবাদিক। দু'য়েকটি সমস্যা ছাড়া মাঠ, আউটফিল্ড, প্রেসবক্সসহ সবকিছুর প্রশংসা করেন তাঁরা।
ক্রীড়া সাংবাদিক আরিফুর রহমান বাবু বলেন, 'মিডিয়ার মাধ্যমে এখন বাংলাদেশের আপামর জনসাধারণ, বিশ্ববাসী জানলো যে বাংলাদেশে একটা অনিন্দ্য সুন্দর ক্রিকেট ভেন্যু আছে। আমি বলবো, এই মুহূর্তে বাংলাদেশের সবচেয়ে দৃষ্টিনন্দন ভেন্যু এটি।'
এরআগে টি-২০ বিশ্বকাপের বাছাই ম্যাচ এবং নারী বিশ্বকাপের কয়েকটি ম্যাচ ছাড়া বড় ধরনের কোন টুর্নামেন্ট হয়নি এই স্টেডিয়ামে।
আয়োজন নিয়ে প্রশ্ন ছিলো, ছিলো নিরাপত্তার ঘাটতি। সীমানা প্রাচীরও ছিলো অরক্ষিত। এতকিছুর পরেও বিপিএলের সিলেট পর্ব সফলভাবে শেষ হলো। সপ্তাহব্যাপী ক্রিকেট উৎসব মনভোরে উপভোগ করে চায়ের দেশ থেকে বিপিএলকে শুভবিদায় জানালো সিলেটবাসী।

আরও পড়ুন

পুরোপুরি প্রস্তুত সিলেটআলোচনায় যখন সিলেট স্টেডিয়ামবিপিএলকে স্বাগত জানাতে প্রস্তুত শের-ই বাংলাসিলেটকে থামালো খুলনাসিলেটে হতাশ করলো দেশি ক্রিকেটাররা

আরও সংবাদ

বাংলার সময়
বাণিজ্য সময়
বিনোদনের সময়
খেলার সময়
আন্তর্জাতিক সময়
মহানগর সময়
অন্যান্য সময়
তথ্য প্রযুক্তির সময়
রাশিফল
লাইফস্টাইল
ভ্রমণ
প্রবাসে সময়
সাক্ষাৎকার
মুক্তকথা
বাণিজ্য মেলা
রসুই ঘর
বিশ্বকাপ গ্যালারি
বইমেলা
উত্তাল মার্চ
সিটি নির্বাচন
শেয়ার বাজার
জাতীয় বাজেট
বিপিএল
শিক্ষা সময়
ভোটের হাওয়া
স্বাস্থ্য
ধর্ম
চাকরি
পশ্চিমবঙ্গ
ফুটবল বিশ্বকাপ
ভাইরাল
সংবাদ প্রতিনিধি
বিশ্বকাপ সংবাদ
Latest News
আপনিও লিখুন
ছবি ভিডিও টিভি
মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন
GoTop