ksrm

খেলার সময়গেইলের 'দানবীয়' রূপ দেখলো শের-ই বাংলা

খেলার সময় ডেস্ক

fb tw
somoy
ক্রিস গেইল। নামটা শুনলেই চোখের সামনে ভাসে চার-ছক্কায় সাজানো দানবীয় সব ইনিংস। বিপিএলের সব আসরেই খেলেছেন। বিনোদন দিয়েছেন দর্শকদের। কিন্তু এবার খুঁজে পাওয়া যাচ্ছিলো না আগের গেইলকে। বয়স ৩৮ বলে রব ওঠে গেইল শেষ। কিন্তু সার্থক হয়েছে অপেক্ষা। দলের মহাগুরুত্বপূর্ণ ম্যাচে জ্বলে ওঠে গেইলের ব্যাট। ১২৬ রানের দানবীয় ইনিংসে অনেক রেকর্ডই কাটা-কুটি হয়েছে।
ক্রিকেটের বরপুত্র বলা হয় ব্রায়ান লারাকে। টি টোয়েন্টির ক্ষেত্রে সেটা হতে পারেন একজনই, ক্রিস গেইল। আসরের শুরু থেকেই আছেন রংপুরের সাথে। কিন্তু গেইল ঝড়ের ছিটে ফোটাও দেখা মেলেনি। মাঝে পিএসএলে কোনো দল না পাওয়ায়, গেইল শেষ এমন কথাও বলেছেন অনেকে।
কিন্তু কথায় আছে না ফর্ম ইস টেম্পোরারি, ক্লাস ইস পার্মানেন্ট। পুরো বিপিএলে খুড়িয়ে খুড়িয়ে খেলা রংপুরের ডু অর ডাই ম্যাচে। প্রতিপক্ষ খুলনা। হারলেই পত্রপাঠ বিদায়। বাজে ফিল্ডিং আর ক্যাচ মিসের সুযোগ কাজে লাগিয়ে স্কোর বোর্ডে ১৬৭ তোলে খুলনা। আসরে টিকে থাকতে সহজ সমীকরণ, জিততেই হবে।
এবারের আসরে ১৭০'র বেশী রান তাড়া করে দুটি ম্যাচ জিতেছে রংপুর। এবার খুলনার বোলারদের সামনে এই জ্যামাইকান দানব হাজির মূর্তিমান আতংক হয়ে। ইনিংসের তৃতীয় বলেই ছক্কা দিয়ে শুরু।
সেই যে শুরু হলো, আর থামেন নি। ব্যর্থতার বৃত্ত থেকে বের হতে পারেন নি ম্যাকক্যালাম। কিন্তু গেইলের এমন দিনে, রংপুরকে থামানোর সাধ্য কার। মিরপুরের কানায় কানায় পূর্ণ গ্যালারী গেইল মন্ত্রমুগ্ধ উপভোগে ব্যস্ত গেইল তাণ্ডবের।
২৩ বলে স্পর্শ করেন ফিফটি। সেটাও ছক্কা হাঁকিয়ে। এরপর আরও খুনে মেজাজে রংপুরের এই তারকা। স্বদেশী ব্রাথওয়েটের এক ওভারে দুই ছক্কায় নিলেন ১৭। গেলো আসরে যেই গেইলকে ফিরিয়ে নিজের আগমনী বার্তা দিয়েছিলেন এবার সেই আফিফ সাক্ষী হন গেইলের রুদ্র মূর্তির।
রংপুরের জয় তখন সময়ের ব্যাপার মাত্র। কিন্তু তারপরও উৎকণ্ঠা মিরপুরের গ্যালারীতে। সেঞ্চুরি পাবেন তো গেইল। হতাশ হতে হয়নি দর্শকদের। টি টোয়েন্টি ইতিহাসে দ্রুততম সেঞ্চুরিটি গেইলেরই। করেছেন ৩০ বলে। বিপিএলে নিজের ৪র্থ ও ক্যারিয়ারের ১৯তম সেঞ্চুরিটা আসলো ৪৫ বলে। যা বিপিএল ইতিহাসে দ্বিতীয় দ্রুততম।
এখানেই শেষ না। ছুঁয়েছেন আরও মাইলফলক। বিপিএলের ব্যক্তিগত সর্বোচ্চ স্কোরটা করেছেন নিজের নামে। সঙ্গে আসরে এক ইনিংসে সর্বোচ্চ ১৪ ছক্কার রেকর্ড। দলের ৭৩ শতাংশ রান এসেছে গেইলের ব্যাটে। গেইল ঝড়ের যত আক্ষেপ ছিলো সব মিটিয়েছেন একদিনে। দর্শকদের বিনোদন দিয়ে গেইল নিজেও তৃপ্ত। তবে এই হাসিটা নিশ্চয়ই আরও চওড়া হবে দল শিরোপা জিতলে।
/এসএম

আরও পড়ুন

খুলনা বাদ, ফাইনালে এক পা মাশরাফিররুমে সবসময় ঘুমাতে পছন্দ করেন গেইল: মাশরাফি

আরও সংবাদ

বাংলার সময়
বাণিজ্য সময়
বিনোদনের সময়
খেলার সময়
আন্তর্জাতিক সময়
মহানগর সময়
অন্যান্য সময়
তথ্য প্রযুক্তির সময়
রাশিফল
লাইফস্টাইল
ভ্রমণ
প্রবাসে সময়
সাক্ষাৎকার
মুক্তকথা
বাণিজ্য মেলা
রসুই ঘর
বিশ্বকাপ গ্যালারি
বইমেলা
উত্তাল মার্চ
সিটি নির্বাচন
শেয়ার বাজার
জাতীয় বাজেট
বিপিএল
শিক্ষা সময়
ভোটের হাওয়া
স্বাস্থ্য
ধর্ম
চাকরি
পশ্চিমবঙ্গ
ফুটবল বিশ্বকাপ
ভাইরাল
সংবাদ প্রতিনিধি
বিশ্বকাপ সংবাদ
Latest News
আপনিও লিখুন
ছবি ভিডিও টিভি
মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন
GoTop