ksrm

খেলার সময়২০১৭ সালে টেস্টের যতো রেকর্ড

খেলার সময় ডেস্ক

fb tw
somoy
সাঙ্গ হচ্ছে ২০১৭ সাল। আসছে নতুন বছর। ক্রিকেটের অভিজাত ফরম্যাট অর্থাৎ টেস্ট ক্রিকেটে বছরটি ছিলো ঘটনাবহুল। একনজরে দেখে নেয়া যাক সাদা পোশাকে এ বছরের রেকর্ডগুলো।
সর্বোচ্চ দলীয় ইনিংস: ৬৮৭/৮ ডি. বাংলাদেশের বিপক্ষে ভারতের। বাংলাদেশের সর্বোচ্চ ইনিংস ৫৯৫/৮ ডি.। নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে
সর্বনিম্ন দলীয় ইনিংস: ৮১ রান। ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে পাকিস্তানের। বাংলাদেশের সর্বনিম্ন ইনিংস: ৯০ রান। দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে।
বড় ব্যবধানে জয়: ইনিংস এবং ২৫৪ রান। বাংলাদেশের বিপক্ষে দক্ষিণ আফ্রিকার। রান ব্যবধানের দিক দিয়েও সবচেয়ে বড় জয় দক্ষিণ আফ্রিকার। নটিংহ্যামে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে প্রোটিয়ারা জয় পায় ৩৪০ রানে।
সর্বনিম্ন ব্যবধানে জয়: ২০ রানের জয়। অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে বাংলাদেশের। উইকেট ব্যবধানের দিক দিয়েও সর্বনিম্ন ব্যবধানে জয়ের রেকর্ড বাংলাদেশের। কলম্বোয় নিজেদের শততম টেস্টে শ্রীলঙ্কাকে ৪ উইকেটে হারিয়েছিলো বাংলাদেশ।
সর্বাধিক রান সংগ্রহকারী: ১ হাজার ১৯২ রান*। অস্ট্রেলিয়ার স্টিভেন স্মিথের। বাংলাদেশি ব্যাটসম্যানদের মধ্যে বছরে সবচেয়ে বেশি রান এসেছে মুশফিকুর রহিমের ব্যাট থেকে। ৮ ম্যাচে ৭৬৬ রান।
সর্বোচ্চ ব্যক্তিগত ইনিংস: ২৪৩ রান। অ্যালেস্টার কুক এবং বিরাটর কোহলি। বাংলাদেশি ক্রিকেটারদের মধ্যে সাকিব আল হাসানের ২১৭ রানের ইনিংসটিই সর্বোচ্চ।
সর্বাধিক শতক: বিরাট কোহলি, স্টিভেন স্মিথ এবং ডেন এলগারের। ৫টি করে। বাংলাদেশি ক্রিকেটারদের মধ্যে সাকিব আল হাসান এবং মুশফিকুর রহিমের ব্যাট থেকে দুইটি করে শতক এসেছে এবছর।
সর্বাধিকবার শূন্য রানে আউট: শ্রীলঙ্কার নুয়ান প্রদীপ। ১২ ইনিংসে ৭ বার। বাংলাদেশিদের মধ্যে শূন্য রানে আউট হওয়ার দিক দিয়ে সবার উপরে মুশফিক। ৪ বার।
সর্বাধিক ছক্কা: ১৫টি। নিউজিল্যান্ডের ডি গ্রান্ডহোম। বাংলাদেশিদের মধ্যে মুশফিক মেরেছেন সর্বাধিক ৭টি।
সর্বাধিক উইকেট: ৬০টি*। অস্ট্রেলিয়ার নাথান লায়নের। বাংলাদেশিদের মধ্যে সাকিব আল হাসানের ৭ ম্যাচে ২৯ উইকেটই সর্বাধিক।
ইনিংসে সেরা বোলিং ফিগার: ৫০/৮, ভারতের বিপক্ষে নাথান লায়নের।
ম্যাচে সেরা বোলিং ফিগার: ১৫৪/১৩; বাংলাদেশের বিপক্ষে নাথান লায়নের।
সর্বাধিক ডিসমিসাল: কুইন্টন ডি কক; ১২ ম্যাচে ৫০টি।
সর্বাধিক ক্যাচ: স্টিভেন স্মিথ। ২১টি।
সর্বোচ্চ জুটি: ৩৫৯ রান। নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে সাকিব আল হাসান এবং মুশফিকুর রহিমের।
সর্বাধিক ম্যাচ পরিচালনাকারী আম্পায়ার: ইংল্যান্ডের নাইজেল লং এবং অস্ট্রেলিয়ার ব্রুচ অক্সেনফোর্ড। ১০টি করে ম্যাচ।
/এসএম

আরও পড়ুন

২০১৭: কেমন ছিলো বাংলাদেশের টেস্ট অভিজ্ঞতা

আরও সংবাদ

বাংলার সময়
বাণিজ্য সময়
বিনোদনের সময়
খেলার সময়
আন্তর্জাতিক সময়
মহানগর সময়
অন্যান্য সময়
তথ্য প্রযুক্তির সময়
রাশিফল
লাইফস্টাইল
ভ্রমণ
প্রবাসে সময়
সাক্ষাৎকার
মুক্তকথা
বাণিজ্য মেলা
রসুই ঘর
বিশ্বকাপ গ্যালারি
বইমেলা
উত্তাল মার্চ
সিটি নির্বাচন
শেয়ার বাজার
জাতীয় বাজেট
বিপিএল
শিক্ষা সময়
ভোটের হাওয়া
স্বাস্থ্য
ধর্ম
চাকরি
পশ্চিমবঙ্গ
ফুটবল বিশ্বকাপ
ভাইরাল
সংবাদ প্রতিনিধি
বিশ্বকাপ সংবাদ
Latest News
আপনিও লিখুন
ছবি ভিডিও টিভি
মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন
GoTop