ksrm

খেলার সময়দেপার্তিভোকে ৭-১ গোলে উড়িয়ে দিল রিয়াল

খেলার সময় ডেস্ক

fb tw
somoy
সবশেষ কবে প্রতিপক্ষের বুকে ত্রাস ছড়িয়েছে রিয়াল মাদ্রিদ? পুরো ম্যাচে দাপট দেখিয়ে ম্যাচ জিতেছে, তা হয়তো ভুলতেই বসেছিলো সমর্থকরা। সঙ্গে ক্রিস্টিয়ানো রোনালদোর ক্লাব পরিবর্তনের গুঞ্জন। সান্তিয়াগো বার্নাব্যু জুড়ে ছিলো গুমোট এক পরিবেশ। কিন্তু হয়তো অপেক্ষা ছিলো এমন একটা জয়ের। পুরো ম্যাচে দাপট দেখিয়ে জয় পেলো জিনেদিন জিদানের দল। ব্যবধানটাও তাদের মতই রাজসিক, ৭-১ ব্যবধানের।
অবশ্য ম্যাচে কিন্তু প্রথম গোল পেয়েছিল দেপোর্তিভো লা করুনা। ২৩ মিনিটে দলকে এগিয় দেন আদ্রিয়ান।
টার্কোসদের সুখের সময় ছিলো ঐটুকুই। মার্সেলোর জোড়া অ্যাসিস্টে দর্শনীয় দুটি গোল করেন নাচো ও গ্যারেথ বেল।
বিরতির পর আরও দুর্ধর্ষ জিদানের দল। দেপোর্তিভোকে গোলবন্যায় ভাসানোর শুরুটা করেন গ্যারেথ বেল। বেলের ফর্মে ফেরার দিনে সিআর সেভেনও ফিরেছেন স্বরুপে।
৬৮ মিনিটে গোল করিয়েছেন লুকা মদ্রিচকে দিয়ে। এরপর ৭৮ ও ৮৪ মিনিটে নিজে করেছেন জোড়া গোল। রিয়াল এগিয়ে ৬-১ ব্যবধানে।
বার্নাব্যুতে রিয়ালের গোল উৎসবের শুরুটা হয়েছিল নাচোকে দিয়ে। শেষটাতেও তার নাম। ৮৮ মিনিটে দলের সপ্তম গোল করে লা লিগায় বছরে প্রথম জয় উদযাপন করে মাদ্রিদিস্তানরা।
এদিকে বুন্দেসলিগায় গেলো দেড় দশকে ১০বার শিরোপা গেছে জিতেছে বায়ার্ন মিউনিখ। আসরের সবচেয়ে সফল দলও বাভারিয়ানরা। রিবেরি-মুলাররা জিতেছে টানা ৫ শিরোপা।
চলতি মৌসুমে কেবল মাঝপথ পেড়িয়েছে বুন্দেসলিগা। কিন্তু অন্য ক্লাবগুলোর সঙ্গে ব্যবধানটা এতটাই গড়ে নিয়েছে বায়ার্ন, তাতে বলাই যায় টানা ৬ষ্ঠ শিরোপা জয় এখন শুধু সময়ের ব্যাপার। লিগের ১৯ ম্যাচ শেষে দ্বিতীয় স্থানে থাকা বায়ার লেভারকুসেনের চেয়ে বায়ার্ন ১৬ পয়েন্টে এগিয়ে।
অবশ্য রেলিগেশন জোনে থাকা ওয়ের্ডার ব্রেমেন এদিন ভয় ধরিয়ে দিয়েছিল বায়ার্ন সমর্থকদের মনে। অ্যালিয়েঞ্জ অ্যারেনায় ২৫ মিনিটে জেরোমে গোনডোর্ফের গোলে এগিয়ে যায় ব্রেমেন। তবে বিরতিতে যাবার আগেই সমতা আনে বাভারিয়ানরা। থমাস মুলারের গোলে স্বস্তি নিয়ে প্রথমার্ধ্ব শেষ করে তারা।
বিরতির পরে দৃশ্যপটে আবির্ভাব বায়ার্নের গোলমেশিন রবার্ট লেওয়ানডস্কির। হামেস রদ্রিগেজের অ্যাসিস্টে স্কোরশিটে নাম ওঠান তিনি। তবে নিকোলাস সুলের আত্মঘাতি গোল আশীর্বাদ হয়ে আসে ওয়ের্ডার ব্রেমেনের জন্য।
পয়েন্ট হারানোর শংকা কিছুটা হলেও তখন উকি দিচ্ছিলো বায়ার্ন মিউনিখকে। কিন্তু বাভারিয়ার গ্যালারীকে শংকা থেকে মুক্ত করেন লেওয়ানডস্কি। আর খেলা শেষ হবার ৬ মিনিট আগে মুলারের দ্বিতীয় গোলে, বায়ার্নের জয়ের ব্যবধান দাঁড়ায় ৪-২ গোলের।

আরও সংবাদ

বাংলার সময়
বাণিজ্য সময়
বিনোদনের সময়
খেলার সময়
আন্তর্জাতিক সময়
মহানগর সময়
অন্যান্য সময়
তথ্য প্রযুক্তির সময়
রাশিফল
লাইফস্টাইল
ভ্রমণ
প্রবাসে সময়
সাক্ষাৎকার
মুক্তকথা
বাণিজ্য মেলা
রসুই ঘর
বিশ্বকাপ গ্যালারি
বইমেলা
উত্তাল মার্চ
সিটি নির্বাচন
শেয়ার বাজার
জাতীয় বাজেট
বিপিএল
শিক্ষা সময়
ভোটের হাওয়া
স্বাস্থ্য
ধর্ম
চাকরি
পশ্চিমবঙ্গ
ফুটবল বিশ্বকাপ
ভাইরাল
সংবাদ প্রতিনিধি
বিশ্বকাপ সংবাদ
Latest News
আপনিও লিখুন
ছবি ভিডিও টিভি
মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন
GoTop