ksrm

খেলার সময়মাশরাফির পর সাকিবের জোড়া আঘাত, চাপে জিম্বাবুয়ে

খেলার সময় ডেস্ক

fb tw
somoy
অধিনায়ক ফিরিয়েছেন মাসাকাদজাকে। পিছিয়ে থাকবেন কেন সহ-অধিনায়ক। জ্বলে উঠলেন সাকিবও। নিজের চতুর্থ ওভারে পর পর দুই বলে তুলে নিলেন দুই উইকেট।
৭ রানে সুলেমান মিরেকে ফেরালেন বোল্ড করে। পরের বলেই এলবিডব্লিউ'র ফাঁদে পড়ে মিরের পথ ধরলেন অভিজ্ঞ ব্রেন্ডন টেইলর।
শুরুতেই ৩ উইকেট তুলে নিয়ে জিম্বাবুয়েকে চেপে ধরেছেন দুই অধিনায়ক।
সংক্ষিপ্ত স্কোর:
বাংলাদেশ: ২১৬/৯
জিম্বাবুয়ে: ২৯/১ (৮.৪) ক্রেইগ এরভিন ১০* সিকান্দার রাজা* ০।
আক্রমণাত্মক মাশরাফিতেই প্রথম ব্রেকথ্রু
প্রথমেই বল তুলে দিয়েছিলেন সহকারী সাকিব আল হাসানের হাতে। অন্য প্রান্ত থেকে বল করছিলেন নিজেই। এদিন বেশ আক্রমণাত্মক মাশরাফি। স্লিপে দুইজন ফিল্ডার নিয়ে বল করছিলেন।
শুরু থেকেই তাঁর দুর্দান্ত সব সুইংয়ে নাভিশ্বাস উঠছিলো জিম্বাবুয়ের দুই ওপেনারের। শেষ পর্যন্ত উইকেট দিতেই হলো।
প্রথম স্লিপে সাব্বির রহমানের হাতে ক্যাচ দিয়ে ফেরার আগে হ্যামিলটন মাসাকাদজা করেন ৫ রান।
সংক্ষিপ্ত স্কোর:
বাংলাদেশ: ২১৬/৯
জিম্বাবুয়ে: ১৬/১ (৫.২) সুলেমান মিরে* ৪ ক্রেইগ এরভিন* ০।
ভিন্ন রূপে বাংলাদেশ, বেশিদূর যেতে দিলো না জিম্বাবুয়ে
ত্রিদেশীয় সিরিজের প্রথম দুই ম্যাচে প্রতিপক্ষকে পাত্তাই দেয়নি বাংলাদেশ। প্রথম ম্যাচে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে ২২ ওভার হাতে রেখেই ৮ উইকেটের বিশাল জয়। নিজেদের পরবর্তী ম্যাচে শ্রীলঙ্কাকে হারালো ১৬৩ রানে। দুই ম্যাচেই ব্যাটসম্যানদের দাপট চোখে পড়ার মতো।
তবে আজকের চিত্রটা ঠিক তার উল্টো। জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে ব্যাটিং বিপর্যয়ে পড়ে বেশিদূর যেতেই পারলো না টাইগাররা।
মিরপুরে টস জিতে ব্যাটিংয়ে নেমে অধিনায়কের সিদ্ধান্তকে সঠিক প্রমাণ করতে পারেননি ওপেনার এনামুল হক বিজয়। মাত্র ১ রানে কাইল জারভিসের বলে এলবিডব্লিউ হয়ে ফেরেন তিনি। এরপর সাকিব আল হাসানের সঙ্গে ১০৬ রানের জুটি বেধে দলকে টেনে তোলেন তামিম ইকবাল। অর্ধশত পূরণ করেই ফিরে যান সাকিব। এরপরেই বদলে যায় বাংলাদেশের চেহারা। দলীয় ১৪৭ রানের সময় মুশফিকুর রহিম আউট হবার পর আর কোন ব্যাটসম্যানই সেভাবে দাঁড়াতে পারেননি। তবে শেষ দিকে সানজামুল এবং মোস্তাফিজের ব্যাটে লজ্জা এড়ায় টাইগাররা। ২১৬ রানে শেষ হয় মাশরাফি বাহিনীর ইনিংস। মোস্তাফিজ ১৮ এবং ৮ রানে অপরাজিত থাকেন রুবেল হোসেন।
অধিনায়ক গ্রায়েম ক্রেমার ৪টি এবং কাইল জার্ভিস নিয়েছেন ৩টি উইকেট।
নিজেদের প্রথম তিন ম্যাচের দু'টিতে হার নিয়ে টুর্নামেন্টের ফাইনালের সম্ভাবনা দড়িতে ঝুলে আছে জিম্বাবুয়ের। ফানইল নিশ্চিত করতে তাই আজকের ম্যাচে জয়ের বিকল্প নেই তাদের। অপরদিকে আগেই ফাইনাল নিশ্চিত করা বাংলাদেশের জন্য এটি কেবলই অনুষ্ঠানিকতা।
সংক্ষিপ্ত স্কোর:
বাংলাদেশ: ২১৬/৯ (তামিম ৭৬, সাকিব ৫১; ক্রেমার ৪/৩২, জার্ভিস ৩/৪২)

আরও সংবাদ

বাংলার সময়
বাণিজ্য সময়
বিনোদনের সময়
খেলার সময়
আন্তর্জাতিক সময়
মহানগর সময়
অন্যান্য সময়
তথ্য প্রযুক্তির সময়
রাশিফল
লাইফস্টাইল
ভ্রমণ
প্রবাসে সময়
সাক্ষাৎকার
মুক্তকথা
বাণিজ্য মেলা
রসুই ঘর
বিশ্বকাপ গ্যালারি
বইমেলা
উত্তাল মার্চ
সিটি নির্বাচন
শেয়ার বাজার
জাতীয় বাজেট
বিপিএল
শিক্ষা সময়
ভোটের হাওয়া
স্বাস্থ্য
ধর্ম
চাকরি
পশ্চিমবঙ্গ
ফুটবল বিশ্বকাপ
ভাইরাল
সংবাদ প্রতিনিধি
বিশ্বকাপ সংবাদ
Latest News
আপনিও লিখুন
ছবি ভিডিও টিভি
মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন
GoTop